Category: রম্য কবিতা

মজার দেশ

এক যে আছে মজার দেশ, সব রকমে ভালো, রাত্তিরেতে বেজায় রোদ, দিনে চাঁদের আলো! আকাশ সেথা সবুজবরণ গাছের পাতা নীল; ডাঙ্গায় চরে রুই কাতলা জলের মাঝে চিল! সেই দেশেতে বেড়াল…

খুকি ও কাঠবেড়ালি

কাঠবেড়ালি! কাঠবেড়ালি! পেয়ারা তুমি খাও? গুড়-মুড়ি খাও? দুধ-ভাত খাও? বাতাবি-নেবু? লাউ? বেড়াল-বাচ্চা? কুকুর-ছানা? তাও- ডাইনি তুমি হোঁৎকা পেটুক, খাও একা পাও যেথায় যেটুক! বাতাবি-নেবু সকলগুলো একলা খেলে ডুবিয়ে নুলো! তবে…

নন্দলাল

নন্দলাল তো একদা একটা করিল ভীষণ পণ- স্বদেশের তরে, যা করেই হোক, রাখিবেই সে জীবন। সকলে বলিল, ‘আ-হা-হা কর কী, কর কী, নন্দলাল’? নন্দ বলিল, ‘বসিয়া বসিয়া রহিব কি চিরকাল?…

বাংলাটা ঠিক আসে না

ছেলে আমার খুব ‘সিরিয়াস’ কথায়-কথায় হাসে না জানেন দাদা, আমার ছেলের বাংলাটা ঠিক আসে না। ইংলিশে ও ‘রাইমস’ বলে ‘ডিবেট’ করে, পড়াও চলে আমার ছেলে খুব ‘পজেটিভ’ অলীক স্বপ্নে ভাসে…

সফদার ডাক্তার

সফদার ডাক্তার মাথা ভরা টাক তার খিদে পেলে পানি খায় চিবিয়ে। চেয়ারেতে রাত দিন বসে গোনে দুই তিন পড়ে বই আলোটারে নিভিয়ে। ইয়া বড় গোঁফ তার নাই তার জুড়িদার শুলে…

কিছু চাই?

কারোর কিছু চাই গো চাই? এই যে খোকা, কী নেবে ভাই? জলছবি আর লাট্টু লাটাই কেক বিস্কুট লাল দেশলাই খেলনা বাঁশি কিংবা ঘুড়ি লেড্‌ পেনসিল রবার ছুরি? এসব আমার কিছুই…

গল্প বলা

“এক যে রাজা”- “থাম না দাদা, রাজা নয় সে, রাজ পেয়াদা।” “তার যে মাতুল”- “মাতুল কি সে? সবাই জানে সে তার পিসে।” “তার ছিল এক ছাগল ছানা”- “ছাগলের কি গজায়…

হারাধনের দশটি ছেলে

হারাধনের দশটি ছেলে ঘোরে পাড়াময়, একটি কোথা হারিয়ে গেল রইল বাকি নয়। হারাধনের নয়টি ছেলে কাটতে গেল কাঠ, একটি কেটে দু’খান হল রইল বাকি আট। হারাধনের আটটি ছেলে বসলো খেতে…

সাহেব ও মোসাহেব

সাহেব কহেন, “চমৎকার! সে চমৎকার!” মোসাহেব বলে, “চমৎকার সে হতেই হবে যে! হুজুরের মতে অমত কার?” সাহেব কহেন, “কী চমৎকার, বলতেই দাও, আহা হা!” মোসাহেব বলে, “হুজুরের কথা শুনেই বুঝেছি,…