Category: প্রকৃতির কবিতা

হারিয়ে

কোনোদিন গেছ কি হারিয়ে, হাট-বাট নগর ছাড়িয়ে দিশাহারা মাঠে, একটি শিমূলগাছ নিয়ে আকাশের বেলা যেথা কাটে? সেখানে অনেক পথ খুঁজে পৃথিবী শুয়েছে চোখ বুজে এলিয়ে হৃদয়। শিয়রে শিমূল শুধু একা…

তোমরা যেখানে সাধ চলে যাও

তোমরা যেখানে সাধ চলে যাও — আমি এই বাংলার পারে র’য়ে যাব; দেখিব কাঁঠালপাতা ঝরিতেছে ভোরের বাতাসে; দেখিব খয়েরি ডানা শালিখের সন্ধ্যায় হিম হয়ে আসে ধবল রোমের নিচে তাহার হলুদ…

পৃথিবী

______ আজ আমার প্রণতি গ্রহণ করো, পৃথিবী, ________ শেষ নমস্কারে অবনত দিনাবসানের বেদিতলে। ___ মহাবীর্যবতী , তুমি বীরভোগ্যা, ______ বিপরীত তুমি ললিতে কঠোরে, ________ মিশ্রিত তোমার প্রকৃতি পুরুষে নারীতে ;…

বাতায়ন-পাশে গুবাক-তরুর সারি

বিদায়, হে মোর বাতায়ন-পাশে নিশীথ জাগার সাথী! ওগো বন্ধুরা, পাণ্ডুর হ’য়ে এল বিদায়ের রাতি! আজ হ’তে হ’ল বন্ধ আমার জানালার ঝিলিমিলি, আজ হ’তে হ’ল বন্ধ মোদের আলাপন নিরিবিলি। অস্ত-আকাশ-অলিন্দে তার…

আফ্রিকা

উদ্ভ্রান্ত সেই আদিম যুগে স্রষ্টা যখন নিজের প্রতি অসন্তোষে নতুন সৃষ্টিকে বারবার করছিলেন বিধ্বস্ত, তাঁর সেই অধৈর্যে ঘন-ঘন মাথা-নাড়ার দিনে রুদ্র সমুদ্রের বাহু প্রাচী ধরিত্রীর বুকের থেকে ছিনিয়ে নিয়ে গেল…

রাখাল ছেলে

“রাখাল ছেলে! রাখাল ছেলে! বারেক ফিরে চাও, বাঁকা গাঁয়ের পথটি বেয়ে কোথায় চলে যাও?” ওই যে দেখ নীল-নোয়ান সবুজ ঘেরা গাঁ, কলার পাতা দোলায় চামর শিশির ধোয়ায় পা, সেথায় আছে…

আমি

আমারই চেতনার রঙে পান্না হল সবুজ, চুনি উঠল রাঙা হয়ে। আমি চোখ মেললুম আকাশে, জ্বলে উঠল আলো পুবে পশ্চিমে। গোলাপের দিকে চেয়ে বললুম “সুন্দর”, সুন্দর হল সে। তুমি বলবে, এ…

পাখির মতো

আম্মা বলেন, পড় রে সোনা আব্বা বলেন, মন দে; পাঠে আমার মন বসে না কাঁঠালচাঁপার গন্ধে। আমার কেবল ইচ্ছে জাগে নদীর কাছে থাকতে, বকুল ডালে লুকিয়ে থেকে পাখির মতো ডাকতে।…

হেমন্ত

সবুজ পাতার খামের ভেতর হলুদ গাঁদা চিঠি লেখে কোন্ পাথারের ওপার থেকে আনল ডেকে হেমন্তকে? আনল ডেকে মটরশুঁটি, খেসারি আর কলাই ফুলে আনল ডেকে কুয়াশাকে সাঁঝ সকালে নদীর কূলে। সকাল…

কপোতাক্ষ নদ

সতত, হে নদ তুমি পড় মোর মনে সতত তোমার কথা ভাবি এ বিরলে। সতত (যেমনি লোক নিশার স্বপনে শোনে মায়া যন্ত্র ধ্বনি) তব কলকলে জুড়াই এ কান আমি ভ্রান্তির ছলনে।…