মেঘের সাথে সমুদ্রের এতো গভীরতা কেন?
কেন আকাশের রঙে রঙিন হয়ে ওঠে সাগর?
ঠিক এভাবে, জননীও রঙিন হয়ে ওঠে জন্মদাতার কামের নিমগ্নতায়।
পিতা, তোমার পিতৃত্বের অধিকারের রং কী!
সেটা কি মেঘের মতো–নাকি জলের মতো?
এসব প্রশ্ন তখনই আমার মনে আসে–
যখন দেখি মেঘে বিদ্যুৎ চমকায়
সাগরে ঝড় ওঠে।
সবকিছু কেন যেন লন্ডভন্ড হয়ে যায়!
মেঘের রং ক্ষণে ক্ষণে কেন বদলে যায়?
যেন তোমার মন, তোমার মনমেঘ কেন বদলায়?
আমি তো সাগর হতে পারি না!
পারি না তোমার রঙে রঙিন হতে!
আমি মৃত্তিকা হতে চাই–
আমার মাটির দেহে ধরে রাখতে চাই পৃথিবীর সমস্ত জল।
শুধু, পিতার প্রেমের বেদনায় মায়ের চোখের জল স্পর্শ করতে চাই না!

Loading

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *