তোমার দেখা পাচ্ছি না; তোমাদের দেড়-তলা বাড়িটাকে দেখতেছি। বাদামি পর্দা-ওড়া-হালকা-খোলা জানালা দিয়ে যত ভেতর দেখা যায়, ছাদে শুকাতে দেয়া কাপড়চোপড়, ‘ফিরোজা+পিংক’ কম্বিনেশন ড্রেসে তোমাকে একদিন মার্কেটে দেখছিলাম; ওই ড্রেসটা কি ভিজাই থাকে, শুকাইতে দাও না, ছায়াতে শুকাও? গোপনে শুকাও?

তোমার এলাকায় হোটেলগুলায় নাশতা; দুপুর, রাতের খাবার, টং-দোকানের চিনি-ছাড়া-কাঁচাপাতি-দুধ-বেশি-চা; চানাচুর, আপঝাপ, মিনারেল পানি, চুইংগাম, ক্রাকজ্যাক খাচ্ছি প্রশংসা করছি। তোমারে খাইতে পারতেছি না।

তোমার এলাকার রোদ, বৃষ্টি, ধুলাবালি, প্যাঁক, ময়লাটয়লা লাগায় বেড়াচ্ছি; তোমারে লাগানো হয়েই উঠতেছে না। হবে…

তোমার এলাকা ছাইড়া যাচ্ছি;
তোমারে ছাড়ার ফিলিংস্ হচ্ছে, হোক-
আমি অনেক কিছু-ছাইড়া-আসা-লোক!

আবৃত্তি: মাহবুব রহমান (নোটিশ বোর্ড)

Error: View e71e7f42sf may not exist

প্রেমের কবিতাসমূহ

 

Error: View b6c189blmh may not exist

Loading

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *